নলকূপ স্থাপন করতে গিয়ে, গ্যাসের ক্ষনির সন্ধান পেল গ্রাম বাসীরা (ভিডিও)

0 ১,৩৮৯

যশোর সদরের চুড়ামনকাটি ইউনিয়নের নলডাঙ্গা গ্রামের একটি বাড়িতে নলকূপ স্থাপনের সময় বেরিয়ে আসে গ্যাস। হঠাৎ করে আগুন জ্বলতে দেখে কর্মরত শ্রমিকরা নলকূপের চারপাশে কাদার বেষ্টনী দিয়ে লোহার পাইপ বসিয়ে দেন। তিন দিন ধরে সেখানে আগুন জ্বলছে। এলাকাবাসীর ধারণা, সেখানে গ্যাসের খনি থাকতে পারে। ফায়ার সার্ভিস কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শনে এসে এলাকাবাসীকে সতর্ক করেছেন।

বাড়ির মালিক নলডাঙ্গা গ্রামের দক্ষিণ পাড়ার সিরাজুল ইসলামের ছেলে সোহেল রানা জানান, ’মঙ্গলবার দুপুরে নলকূপ স্থাপনের কাজ করার সময় এক শ্রমিক সিগারেট জ্বালিয়ে নলকূপের পাশে পানিতে দিয়াশলাইয়ের জ্বলন্ত কাঠি ফেলেন। এ সময় সেখানে আগুন জ্বলে ওঠে। নলকূপের ভেতর দিয়েও গ্যাস বের হওয়ার শব্দ শোনা যাচ্ছে।’ মিস্ত্রি হাফিজুর রহমান জানান, ১৭০ ফুট পাইপ পুঁতে নলকূপ স্থাপনের কাজ করা হচ্ছিল।

সোহেল রানার বাড়িতে গিয়ে দেখা যায় উৎসুক মানুষের ভিড়। নলকূপের পাশে বসিয়ে দেওয়া পাইপের মুখে আগুন জ্বলছে। ওই আগুনে রস জ্বাল দিচ্ছেন কয়েকজন। কেউ আবার হাঁড়িতে পানি গরম করে নিচ্ছেন।

গ্যাসের সন্ধান মেলার বিষয়টি নিশ্চিত করে ফায়ার সার্ভিস যশোর কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক পরিমল কুণ্ডু জানান, তার নেতৃত্বে তিন সদস্যের দল ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এ সময় ওই বাড়ির লোকজন ও গ্রামবাসীকে সতর্ক থাকার নির্দেশ দিয়ে এসেছেন।

পরিমল কুণ্ডু জানান, কোনো বিশেষজ্ঞ দল না আসা পর্যন্ত নলকূপটি ওই অবস্থায় রাখতে বলা হয়েছে। কেননা এখন নলকূপটি সরাতে গেলে অতিমাত্রায় আগুন জ্বলে সেটির বিস্ম্ফোরণও হতে পারে। নলকূপটি ব্যবহার করতেও নিষেধ করা হয়েছে। তবে কবে নাগাদ বিশেষজ্ঞ দল আসবে, তা জানাতে পারেনি প্রশাসন।

স্থানীয় চুড়ামনকাটি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আবদুল মান্নান স্থানটিতে শিগগিরই সরকারিভাবে পরীক্ষা চালানোর দাবি জানান।

মন্তব্য
Loading...