কানে হেডফোন, ট্রেনের ধাক্কায় নিহত ৬ বন্ধু

0 ২৪৭

কানে গোঁজা ছিল হেডফোন। তাতে গান চলছিল। ওরা খেয়ালই করেনি যে সিগন্যাল সবুজ হয়ে রয়েছে। এমনকী, হেডফোনের দৌলতে কান পর্যন্ত পৌঁছায়নি পিছন থেকে আসা ট্রেনের হর্নও। ফলে লাইন ধরে হাঁটতে গিয়ে ট্রেনের চাকায় কাটা পড়ে মৃত্যু হলো ৬ বন্ধুর। আর এক বন্ধু হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে। মর্মান্তিক এই ঘটনাটি ঘটেছে রবিবার মাঝরাতে ভারতের উত্তর প্রদেশের পিলখুয়ায়।

পুলিশ জানায়, মৃতরা হলো- বিজয়, আকাশ, রাহুল, সমীর, আরিফ এবং সেলিম। আর গুরুতর আহত হয়ে যে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন, তার পরিচয় জানা যায়নি। তবে এদের প্রত্যেকেরই বয়স ১৪ থেকে ১৬ বছরের মধ্যে। প্রত্যেকের কানেই হেডফোন ছিল বলে জানা গিয়েছে।

পুলিশ সূত্রে খবর, তারা প্রত্যেকেই রঙের কাজ করে। সম্প্রতি হায়দ্রবাদে একটি রঙের কাজের বরাত পেয়েছিল। হায়দ্রবাদ যাওয়ার জন্যই তারা ট্রেন ধরতে রাতে পিলখুয়া থেকে গাজিয়াবাদে এসেছিল। কিন্তু যত ক্ষণে গাজিয়াবাদ পৌঁছায়, তত ক্ষণে ট্রেন স্টেশন ছেড়েছে। অত রাতে কোনও গাড়ি না পেয়ে তাই ট্রেন লাইন ধরেই পিলখুয়ায় ফিরে যাচ্ছিল তারা।

পুলিশকে এক প্রত্যক্ষদর্শী জানায়, হেডফোনে গান শুনতে শুনতে তারা প্রত্যেকেই লাইন বরাবর খুব গা ছাড়া ভঙ্গিতে হেঁটে যাচ্ছিল। পিলখুয়ার সাদিকপুরার কাছে পৌঁছালে পিছন থেকে একটি ট্রেন এসে তাদের ধাক্কা মারে। ঘটনাস্থলেই মারা যায় ৬ বন্ধু। আর একজনকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এই দুর্ঘটনার পরেই স্থানীয়েরা ট্রেন লাইন অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন।

তাদের অভিযোগ, ওই এলাকায় কোনও বৈদ্যুতিক আলো নেই। তার ওপর প্রাণের ঝুঁকি নিয়েই সব সময় স্থানীয়দের লাইন পারাপার করতে হয়। ট্রেন আসছে কি না তা বোঝারও কোনও উপায় নেই। ঘটনাস্থলে রয়েছে পুলিশের বিশাল বাহিনী।

সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

মন্তব্য
Loading...