বয়স লুকানোর খেসারত দিলেন শ্রীদেবী?

0 ১,১৬৩

হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মাত্র ৫৪ বছর বয়সেই মারা গেলেন বলিউড ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির প্রথম সুপারস্টার নায়িকা শ্রীদেবী। যদিও জীবন-মৃত্যু সবকিছুই বিধাতার হাতে, তারপরও নায়িকার অকাল মৃত্যুতে সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটে তৈরি হয়েছে নানা সন্দেহ। তার অনেক ঘনিষ্টজনই মনে করছেন, ‘নিজের সঙ্গে যুদ্ধ করেও যেনতেন প্রকারে বয়স লুকানোর খেসারত দিতেই অসময়ে হারিয়ে গেলেন শ্রীদেবী।’

এই সন্দেহের অবসান হওয়ার কোনো উপায় আছে কিনা জানা নেই। তবে সৌন্দর্যের পাশাপাশি তারুণ্য ও লাবণ্য ধরে রাখতে চাওয়া, বয়সের তামাম বহিঃপ্রকাশকে যেকোনো উপায়ে লুকিয়ে রাখার নানা উপায় রয়েছে চিকিৎসাবিজ্ঞানে। সেসব পন্থা আজকাল শুধু গ্ল্যামার জগতের নারীরাই নন, অবলীলায় প্রয়োগ করেন অনেক উচ্চ-মধ্যবিত্ত পরিবারের নারীরাও।

ডাক্তাররা বলছেন, এসব উপায়ের কোনোটা যুক্তিসঙ্গত, কোনোটা আবার একেবারেই অনুচিত। বিশেষ করে বয়সের অংকটা যখন ৪৫ পার হয়, ক্রমশ এগিয়ে আসে মেনোপজ বা ঋতুবন্ধের সন্ধিক্ষণ। এই বয়সে নিজেকে যুবতী হিসেবে উপস্থাপনের কী কী উপায় রয়েছে, সে সম্পর্কে বলেছেন ভারতের কসমেটিক সার্জন মনোজ খান্না, এন্ডোক্রিনোলজিস্ট সতীনাথ মুখোপাধ্যায়, গায়নেকোলজিস্ট বাসব মুখোপাধ্যায়, কার্ডিয়োলজিস্ট অর্ণব রায় এবং স্কিন স্পেশালিস্ট কৌশিক লাহিড়ি।

তারা বলছেন, ‘তারুণ্য ধরে রাখার মূলত তিনটি রাস্তা। ত্বক টানটান রাখা, লাবণ্য ধরে রাখা ও পৃথুলা হয়ে না পড়া। এ জন্য সার্জারির শরনাপন্ন হন অনেকে। বিশেষ করে, গ্ল্যামার জগতের অনেকের কাছে এটা ডালভাত। গ্ল্যামার ধরে রাখার জন্য অনেক নারীই ইনজেকশনের মাধ্যমে বটুলিনাম টক্সিন নামের এক প্রকার ওষুধ শরীরে পুশ করে থাকেন। এই টক্সিন গাল, চিবুক, কপালসহ মুখের যে পেশীগুলো কুঁচকে যায় তার সংলগ্ন পেশীগুলোর নড়াচড়া বন্ধ করে দেয়। ফলে কথা বললে বা হাসলে বিন্দুমাত্র ভাজ পড়ে না মুখের কোথাও। ত্বক থাকে টানটান।’

দীর্ঘমেয়াদী ফল পাওয়ার জন্য প্লাস্টিক সার্জারির আশ্রয়ও নেন অনেকে। অনেক আবার নেন বটক্স থেরাপি। এই থেরাপি অনেকটা নেশার মতো। বটক্স থেরাপির একটি হচ্ছে ইস্ট্রোজেন। মেনোপেজের আগে এই ইস্ট্রোজেন বর্ম হিসেবে কাজ করলেও, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের হেলথ ইনিশিয়েটিভ স্টাডির রিপোর্ট বলছে, ‘লাগাতার ইস্ট্রোজেন নিলে হিতে বিপরীত হয়। তা হার্টের সমস্যা বাড়িয়ে তোলে অনেক গুণ বেশি। রক্তবাহিকার যেখানে-সেখানে আচমকা রক্ত জমাট বেঁধে গিয়ে হার্ট অ্যাটাক ও স্ট্রোক হওয়াও বিচিত্র নয়।’

তারুণ্য ও লাবণ্য ধরে রাখতে নানা ধরণের থেরাপি নিতেন প্রয়াত নায়িকা শ্রীদেবীও। কাজেই, সৌন্দর্য ধরে রাখার সেই থেরাপিই বলিউডের প্রথম নারী সুপারস্টারের জীবনের কাল হলো কিনা, সেই সন্দেহই করছেন তার ঘনিষ্ঠরা। গত শনিবার রাত ১১টার দিকে দুবাইয়ে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান শ্রীদেবী। আজ তার মরদেহ দেশে আসার কথা রয়েছে। সূত্র: এই সময়

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

মন্তব্য
Loading...