আইএস সম্পৃক্ততায় ইরাকে ১৬ তুর্কি নারীর মৃত্যুদন্ড

0 ৬৯০
A picture taken on February 19, 2018, shows French Jihadist Melina Bougedir carriyng hers soon arriving in court in the Iraqi capital Baghdad.
Melina Bougedir, 27, was arrested last summer in former Islamic State group stronghold Mosul with her four children, three of whom have been repatriated to France. / AFP PHOTO / STRINGER

ইরাকের একটি আদালত অন্তত ১৬ জন তুর্কি নারীকে মৃত্যুদন্ডাদেশ দিয়েছে।

তাদের বিরুদ্ধে মধ্যপ্রাচ্য ভিত্তিক সন্ত্রাসী সংগঠন ইসলামিক স্টেট (আইএস) এর সাথে জড়িত থাকার অভিযোগ আনা হয়েছে।

মৃত্যুদন্ড-প্রাপ্ত তুর্কি নারীদের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনার পর দ্রুত বিচার আইনে তাদের বিচার কার্য সম্পন্ন করা হয়। অভিযুক্তদের আপিলের জন্য প্রায় এক মাস সময় দেওয়া হয়েছিল। যথেষ্ট সময় পাওয়ার পরও তারা নিজেদের নিরাপরাধ প্রমাণ করতে ব্যর্থ হওয়ায় মৃত্যুদন্ড- বহাল থাকবে বলে জানিয়েছে আদালত।

গত শনিবারের আদেশের মাধ্যমে ইরাক প্রায় ১০০জন বিদেশি নারীর বিরুদ্ধে সন্ত্রাসী সম্পৃক্ততায় বিচারের রেকর্ড করল। দন্ডাদেশ প্রাপ্ত নারীদের অধিকাংশের বয়স ২০ থেকে ৫০ এর মধ্যে এবং অনেকের সাথে বাচ্চা রয়েছে।

মৃত্যুদন্ড-প্রাপ্ত নারীরা আদালতকে জানিয়েছে, তারা তাদের স্বামীদের সঙ্গ দিতে ও আইএস’র সাথে যুদ্ধ করতেই সেখানে এসেছিল। একজন আইএস’র সাথে যুদ্ধে অংশ নেওয়ারও স্বীকারোক্তি দিয়েছে।

ইরাক সরকার অবৈধ অনুপ্রবেশ ও আইএস সম্পৃক্ততায় এ পর্যন্ত প্রায় ৫৬০জন নারী ও প্রায় ৬০০ শিশুকে গ্রেফতার করেছে। জানুয়ারিতে একজন জার্মান নারীকে আইএসকে সহযোগিতার দায়ে মৃত্যুদন্ড- দেয়া হয়েছিল এবং অন্য একজন জার্মানিকে আইএসের সন্ত্রাসীকে বিয়ে করার দায়ে ৬ বছরের কারাদ- দেওয়া হয়েছিল।

উল্লেখ্য, হিউম্যান রাইটস ওয়াচ (এইচআরডব্লিউ)’র মানবাধিকারকর্মীরা বলছেন, তাদের মৃত্যুদন্ডের আদেশটি ন্যায় সম্মত হয়নি। কারণ তাদের আইএস সন্ত্রাসীরা প্রতারিত করে ও বাধ্য করে সন্ত্রাসী কর্মকান্ডে জড়িয়েছে। রয়টার্স

মন্তব্য
Loading...