নিউরোএন্ডোক্রাইন টিউমারে আক্রান্ত ইরফান খান

0 ২১১

নিজে টুইট করে অসুস্থতার খবর জানিয়েছিলেন অভিনেতা। বলেছিলেন বিস্তারিত পরে জানাবেন। কিন্তু এর মধ্যেই ইরফান খানের ‘বিরল রোগ’ নিয়ে আলোচনা-পর্যালোচনা শুরু হয়ে যায়। রটে যায় রটনা। কেউ কেউ বলতে শুরু করেন ব্রেন ক্যানসারে আক্রান্ত অভিনেতা। নাহ, মারণ রোগ হয়নি অভিনেতার। কিন্তু যা হয়েছে তা রাজরোগের চেয়ে কম কিছু নয়। শুক্রবারই টুইটের মাধ্যমের নিজের রোগের নাম জানিয়ে দেন ইরফান। নিউরোএন্ডোক্রাইন টিউমার হয়েছে অভিনেতার।

‘নিউরো’ শব্দটি জড়িত থাকলেও এই টিউমারটি মুখ্যত মানবশরীরের অন্ত্রেই হয়ে থাকে। এটি ক্যানসার প্রবণও হয়ে থাকে। একে কারসিনয়েড টিউমারও বলা হয়ে থাকে। শরীরের বিভিন্ন অঙ্গপ্রতঙ্গে ছড়িয়ে পড়তে পারে এটি। এর প্রভাবে বারবার মলত্যাগ, ডায়েরিয়া, শ্বাসকষ্ট, হৃদরোগ, তলপেটে প্রবল ব্যথা হতে পারে।

ইরফান নিজে জানিয়েছেন, খুব একটা ভাল অবস্থায় তাঁর টিউমারটি নেই। তবে বন্ধু ও শুভাকাঙ্খীরা পাশে রয়েছেন। তাঁদের দেখেই লড়াইয়ের সাহস পাচ্ছেন অভিনেতা। এই লড়াই চালিয়ে যেতে চান তিনি। তাই চিকিৎসার জন্য বিদেশে রওনা দিচ্ছেন। এমন সময় মানুষকে অযথা জল্পনা না রটানোর আবেদন জানিয়েছেন ইরফান। টিউমার সম্পর্কে জানতে হলে মানুষকে গুগল করার পরামর্শও দিয়েছেন। যাঁরা তাঁকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন, তাঁদের জন্য ফিরে আসার আশ্বাসও দিয়েছেন ইরফান।

জানা গিয়েছে, পরিণত হলেই নিউরোএন্ডোক্রাইন টিউমার প্রাণঘাতী হতে পারে। তবে এর চিকিৎসাও রয়েছে। সময়ের মধ্যে ধরা পড়লে অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে তা বের করে নেওয়া যেতে পারে। আর প্রয়োজনে কেমোথেরাপি দেওয়া হতে পারে। সেই কারণেই বিদেশে যাচ্ছেন অভিনেতা। যেন খুব শিগগিরিই ইরফান সুস্থ হয়ে ফিরে আসেন। আর স্বমহিমায় কাজে যোগ দেন, সেই প্রার্থনাই করছে গোটা বলিউড। প্রিয় অভিনেতার সুস্থতার কামনা করেছেন সিনেপ্রেমীরাও।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

মন্তব্য
Loading...