বান্দরবানে বৌদ্ধ ভিক্ষুকে কুপিয়ে হত্যা

0 ৬১

বান্দরববানে বাকিছড়া-মাঝেরপাড়া বৌদ্ধ বিহারের উপ-অধ্যক্ষ ভান্তে মংথুই সাং প্রকাশ নাইন্দা ভিক্ষুকে (৭৫) কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। বুধবার ভোরে এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, তাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। নিহতের মুখে এবং গলায় একাধিক আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। ঘটনার পর থেকে বৌদ্ধ বিহারের শ্রবন ভান্তে (শিক্ষা নবিশ) ম্রায় থোই (৪৪) পলাতক রয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে ছোট ভান্তে বিহারের বড় বৌদ্ধ ভিক্ষু’কে কুপিয়ে হত্যা করে পালিয়ে গেছে তারা।

খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে নিহত ভান্তের লাশ উদ্ধার করেছে। লাশটি ময়না তদন্তের জন্য বান্দরবান সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী-প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। নিহত বৌদ্ধ বিহারের উপ-অধ্যক্ষ ভান্তে মংথুই সাং-এর বাড়ি বাকিছড়া-মাঝেরপাড়া

বলে জানা গেছে । কুহালং ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সানু প্রু মারমা বলেন, ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে বিহারের উপ-অধ্যক্ষ নাইন্দা ভিক্ষু’কে হত্যা করেছে ছোট ভান্তে ম্রায় থোই। আগে সে ক্যায়ামলং বিহারে ছিল, সেখান থেকে এ বিহারে এসেছে তিন বছর হচ্ছে। শ্রবণ ছোট ভান্তেটি মানষিকভাবে অসুস্থ। নিহত উপ-অধ্যক্ষর সঙ্গে তার শ্রবণের কয়েকবার কথা কাটাকাটি হয়েছিল। তারই জের ধরে এ হত্যাকান্ড ঘটে থাকতে বলে ধারণা করা হচ্ছে।
স্থানীয় বাসিন্দাররা জানায়, পুরনো বৌদ্ধ বিহারটি আগে পাড়ায় নীচে ছিল। পাহাড়ের চূড়ায় নতুনভাবে বৌদ্ধ বিহারটি নির্মাণ করা হয়েছে বছর চারেক হচ্ছে। বিহারে ৩ জন বৌদ্ধ ভিক্ষু, ১জন শ্রবণ ভিক্ষু (শিক্ষানকিশ) এবং ১৫ জন শিশু শ্রবণ ছাত্র থাকতো।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সার্কেল) ইয়াছিন আরাফাত জানান, সদর উপজেলার কুহালং ইউনিয়নের বাকিছড়া-মাঝের পাড়া বৌদ্ধ বিহারের উপ-অধ্যক্ষের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

মন্তব্য
Loading...