Sylhet Express

খালেদা জিয়াকে জেলে রেখেই না ফেরার দেশে চলে গেলেন সেই রিজভী

0 ২৭

কিছু কিছু ভালবাসা হয় নিঃস্বার্থ , যে ভালবাসাকে কোন সংজ্ঞায় সংজ্ঞায়িত করা যায় না , যে ভালবাসারর মধ্যে প্রাপ্তির কোন চাহিদা নেই, কথায় বলে, সেই মানুষ সবচে ভাগ্যবান, যে অন্য মানুষের নিঃস্বার্থ ভালোবাসা পায়। জানি না বাংলাদেশ তিনবারের প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া কতটা ভাগ্যবান, তবে কিছু মানুষের অকৃত্রিম নিস্বার্থ ভালবাসা যে তিনি এক জীবনে পেয়েছেন, সে কথা অনস্বীকার্য, তাদের মধ্যেই একজন হলেন বিএনপির একনিষ্ঠ সমর্থক রিজভী হাওলাদার ।
চাল চুলোহীন রিজভী হাওলাদার বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার কারাদণ্ডের প্রতিবাদে এককভাবে অনশন কর্মসূচি পালন করেছিলেন। সেই রিজভী্ হাওলাদার খালেদা জিয়াকে জেলে রেখেই মারা গেছেন। ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাহি রাজিউন।

পরে পুরাতন কেন্দ্রীয় কারাগারে খালেদা জিয়ার জন্য ফল নিয়ে গেলে সংবাদমাধ্যমে তাকে নিয়ে খবরও পরিবেশিত হয়।

নয়পল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের অফিস সহকারী রফিক আহমেদ শনিবার রাতে দেশ রূপান্তরকে তার মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, শনিবার অসুস্থ বোধ করলে ইসলামী ব্যাংক হসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে তিনি মারা যান।

কী কারণে তার মৃত্যু হয়েছে তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি বলে জানান তিনি।

বিএনপি সূত্র জানায়, রিজভীর বাড়ি পটুয়াখালীর বাউফলে। তিনি বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের নিচেই থাকতেন সবসময়। তার ভরণপোষণের দায়িত্ব ছিল বিএনপির নেতাকর্মীদের।

শনিবার রাতে তার লাশ বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে নিয়ে আসা হয়। বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব হাবিব উন নবী খান সোহেল সেখানে যান।

গত বছর ফেব্রুয়ারিতে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় পাঁচ বছরের সাজা পেয়ে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া কারাগারে যান। তখন পুরান ঢাকার নাজিম উদ্দিন রোডে পুরাতন কেন্দ্রীয় কারাগারে ফল নিয়ে যান রিজভী হাওলাদার।

তিনি বলেন, আমার ‘মা’ খালেদা জিয়া গ্রেফতার হওয়ার পর গত ৮ দিনে মাত্র ৩ বার ভাত খেয়েছি। খালেদা জিয়া কারাগারে যাওয়ার পর থেকে শুধু কাঁদছি।

মন্তব্য
Loading...