Sylhet Express

কমিয়ে আনা হবে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি

0 ৭৫

করোনাভাইরাসের থাবায় বিপর্যস্ত দেশের শিক্ষা খাত। এক মাসেরও বেশি বন্ধ রয়েছে সারাদেশের সব ধরনের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। প্রায় সাড়ে ৫ কোটি শিক্ষার্থী ঘরে বসে আছে। করোনা পরিস্থিতির উন্নতি হলেই কেবল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়া হবে বলে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নীতিনির্ধারকরা ধারণা দিয়েছেন।চলতি বছর দীর্ঘ সময় ধরে সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় এবার একাডেমিক ক্যালেন্ডার অনুযায়ী ঐচ্ছিক শিক্ষা ছুটি সীমিত করার কথা ভাবা হচ্ছে। ফলে ঈদুল আজহার ছুটি কমিয়ে ১৫ দিনের পরিবর্তে ১০ দিন ও দুর্গাপূজার ছুটি ৭ দিনের পরিবর্তে ৩ দিন করা হতে পারে। পাশাপাশি শ্রেণিকক্ষে ক্লাসের সময় ৪০ মিনিটের পরিবর্তে ১ ঘণ্টা করা হবে। শিক্ষার্থীদের একাডেমিক ক্ষতি পুষিয়ে নেওয়ার জন্য এই পরিবর্তন আনা হচ্ছে।

মঙ্গলবার সকালে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব মাহাবুব হোসেনের সঙ্গে ১১টি শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক, সিনিয়র সিস্টেম অ্যানালিস্টসহ সংশ্নিষ্টদের ভিডিও কনফারেন্সে এ বিষয়ে নীতিগত সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান মোকবুল হোসেন কনফারেন্স শেষে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় সাব কমিটির সভাপতি ও ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মু. জিয়াউল হক বলেন, ‌‘এ ছুটিগুলো সমন্বয় করতে আলোচনা হয়েছে। এতে শিক্ষার্থীদের যে সময়টা চলে গেছে, সেটা কিছুটা হলেও পুষিয়ে নেওয়া সম্ভব হবে।

এ বিষয়ে এখনও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়নি। সচিব স্যারের সঙ্গে আলোচনা হয়েছে। বিষয়টি স্টাডির মাধ্যমে ওয়ার্কআউট করে আমরা তাকে দেবো। তারপর চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হবে।করোনাভাইরাসের প্রকোপে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানসহ সব অফিস-আদালত ছুটি ঘোষণা করে সরকার। তিন দফায় আগামী ২৫ এপ্রিল পর্যন্ত এ ছুটি বৃদ্ধি করা হয়েছে।

মন্তব্য
Loading...