Sylhet Express

জৈন্তাপুর সীমান্তে চোরাকারবারী বেন্ডিশ করিম এর রামরাজত্ব

0 ২৩২

নিজস্ব প্রতিবেদক :: জৈন্তাপুর উপজেলার নিজপাট ইউনিয়নের ঘিলাতৈল গ্রামের বাসিন্ধা মছদ্দর আলীর ছেলে সীমান্তের রাজা আব্দুল করিম ওরফে বেন্ডটিস করিম এর দালালীতে ব্যস্ত সময় পার করছে সিলেটের একটি স্থানীয় পত্রিকার সম্পাদক ও জৈন্তাপুর উপজেলার এক সাংবাদিক। স্থানীয় এলাকার লোকজন তাকে সীমান্তের রাজা হিসাবে চিনেন। কিন্তু চোরাচালান চক্রের গড়ফাদার বেন্ডিস করিম এখন টাকার বিনিময়ে জৈন্তাপুর বাজারের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী হয়ে গেলেন। উপজেলার দালাল সাংবাদিককে বিশ হাজার টাকা দিয়ে এ পর্যন্ত দুইটি প্রতিবাদ প্রকাশ করিয়েছেন। সিলেটের একটি স্থানীয় বন্ধ প্রিন্ট পত্রিকার অনলাইন ভার্সনে এ প্রতিবাদ প্রকাশ করা হয়। প্রতিবাদ প্রকাশের আগে ওই দালালরা ক্রাইম সিলেটে সংবাদ প্রকাশ বন্ধের জন্য করিমের কাছ থেকে বড় অংকের আদায় করেন। পরে যখনই ক্রাইম সিলেটে সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে তখন ওই দলাল সাংবাদিকদের উপর ক্ষীপ্ত হন বেন্ডিস করিম বাহিনীর সদস্যরা। গতকাল রাতে জৈন্তাপুর বাজারে হৈই চৈই করে বেন্ডিস করিমের লোকজন। কিন্তু ওই দালালের সাহস হয়নি ক্রাইম সিলেটের অফিসে কথা বলার।

বেন্ডিস করিমের অল্প দিনে কোটিপতি হওয়ার পিছনের সকল রহস্য বেরিয়ে আসবে। বর্তমান সরকারের আমলে টার্গেটে সকল রাঘববোয়ালদের আইনের আওতায় আনা হয়েছে। কেউ ছাড় পায়নি। ঠিক তেমনি সীমান্তের রাজা কোটি কোটি টাকার মালিক বেন্ডিস করিমও ছাড় পাবে না বলে মনে করছেন উপজেলার সচেতন মহল। সে অল্প দিনে সরকারের রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে বিজিবির সাথে হাত মিলিয়ে লাইনম্যান এর কাজ করে আজ সে আঙ্গু ফুলে কলাগাছ।

ওই দালাল সাংবাদিকরা কি করে চোরাচালান চক্রের গড়ফাদারকে বিশিষ্ট ব্যবসায়ী বানাবেন। উপজেলার সর্ব মহলে জানে এবং চিনে করিমের ব্যবসা কি? তাছাড়া লাইন শুরু হলেই ক্রাইম সিলেটে জমা রাখা সকল তথ্য প্রকাশ করা হবে। তখন মানুষ ওই দালালদের মুখে থুথু দিবে। ক্রাইম সিলেট কোন মিথ্যা সংবাদ প্রকাশ করে না। তা দালালরা ভালোই জানেন। কিন্ত এত কিছু জানার পরও কি ভাবে বিশ হাজার টাকার বিনিময়ে প্রতিবাদ প্রকাশ করলো। প্রয়োজনে ওই দালাল সাংবাদিকের নাম ও আসল চরিত্র ভিডিও সহ ক্রাইম সিলেটে প্রকাশ হবে। তাই সময় থাকতে সাবধান হওয়া টাই ভালো। চোরাচালান চক্রের গড়ফাদার বেন্ডিস করিম এর কাছ থেকে দূরে থাকলে বেশ ভালো হয়।

দালাল সাংবাদিকের এহেন কর্মকান্ডে জৈন্তাপুর উপজেলা জুড়ে নিন্দার ঝড় শুরু হয়েছে। সচেতন মহলের প্রশ্ন কত টাকার বিনিময়ে দালাল সাংবাদিকরা চোরাকারবারীদের গডফাদারকে একজন ব্যবসায়ী বলে প্রতিবাদ প্রকাশ করছে। উপজেলাবাসীর চোখে কি ভাবে ধোলো দিলেন ওই দালাল সাংবাদিকরা। মাত্র বিশ হাজার টাকার বিনিময়ে এত কিছু। খবর সাপ্তাহিক ক্রাইম সিলেট বেন্ডটিস করিমকে মানুষ এখন সীমান্তের রাজা হিসাবে চিনেন। কিন্ত প্রকাশ্যে দিনের আলোতে করিমের নেতৃত্বে ভারত থেকে দেশে আসছে চোরাই মহিষ। এছাড়া করিমের সাথে একাধীক চোরাচালানকারীদের ফোন আলাপ ও টাকা উত্তোলনের ভিডিও ক্রাইম সিলেট অফিসে জমা রয়েছে।

বেন্ডটিস করিম তার একটি চোরাচালান চক্র নিয়ে সীমান্ত এলাকায় ত্রাসের রামরাজত্ব কায়েক করছে। বিনিময়ে বেন্ডটিস করিম তার বাহিনীর লোকজন নিয়ে জৈন্তাপুর সীমান্ত দিয়ে দিনের আলোতে ও রাতের আধাঁরে টাকার বিনিময় বুঙ্গার মাল পাচার করছে। তার সকল তথ্য ক্রাইম সিলেট অফিসে জমা রয়েছে।

মন্তব্য
Loading...